ঢাকা, রবিবার, ২৮ মে ২০১৭, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৪

বিএনপি নেতা সোহেলকে হয়রানী না করার নির্দেশ

সুনির্দিষ্ট মামলা ছাড়া বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব হাবিব-উন-নবী খান সোহেলকে গ্রেফতার বা হয়রানী না করতে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। স্বরাষ্ট্র সচিব, পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি), র‌্যাবের মহাপরিচালক, ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনারসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রতি এই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

সোহেলের করা এক রিট আবেদনের প্রেক্ষিতে২০ মার্চ সোমবার বিচারপতি সৈয়দ মোহাম্মদ দস্তগীর হোসেন ও বিচারপতি মো. আতাউর রহমান খানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এই আদেশ দেন। আদালতে সোহেলের পক্ষে শুনানি করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অমিত তালুকদার।

সোহেলের বিরুদ্ধে নাশকতার বিভিন্ন ঘটনায় প্রায় দেড়শ মামলা রয়েছে। এসব মামলার অনেকগুলো থেকে তিনি উচ্চ আদালতে জামিন পেয়েছেন। কিছু মামলায় বিচারিক আদালত থেকেও জামিন পেয়েছেন তিনি। এর আগেও একবার তিনি সব মামলায় জামিন পেয়ে মুক্তির সময় জেল গেট থেকে গ্রেফতার হয়েছিলেন।

তিনি আরও বলেন, এখন সোহেল আবার সব মামলায় আদালত থেকে জামিন পেয়েছেন। এ অবস্থায় তাকে আবার গ্রেফতার করা হতে পারে এমন আশঙ্কা থেকেই হাইকোর্টে এই আবেদন করা হয়েছিল। সেই আবেদনের প্রেক্ষিতে আদালত আদেশ দিয়েছেন, সুনির্দিষ্ট মামলা ও পরোয়ানা ব্যতীত তাকে যেন গ্রেফতার বা কোনরকম হয়রানী করা না হয়।

গত ১৯ মার্চ হাইকোর্টে এ রিট আবেদনটি দায়ের করা হয়েছিল। সেই রিটের শুনানি শেষে আদালত সোমবার আদালত এই আদেশ দেন।

গত বছরের ৯ অক্টোবর নাশকতার বিভিন্ন মামলায় ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করেন সোহেল। আদালত জামিন আবেদন নাকচ করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। সেই থেকে তিনি কারাগারেই আছেন।

বিএনপি নেতা সোহেলকে হয়রানী না করার নির্দেশ

২০১৭ মার্চ ২০ ১৭:০৩:২৫
বিএনপি নেতা সোহেলকে হয়রানী না করার নির্দেশ

সুনির্দিষ্ট মামলা ছাড়া বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব হাবিব-উন-নবী খান সোহেলকে গ্রেফতার বা হয়রানী না করতে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। স্বরাষ্ট্র সচিব, পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি), র‌্যাবের মহাপরিচালক, ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনারসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রতি এই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

সোহেলের করা এক রিট আবেদনের প্রেক্ষিতে২০ মার্চ সোমবার বিচারপতি সৈয়দ মোহাম্মদ দস্তগীর হোসেন ও বিচারপতি মো. আতাউর রহমান খানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এই আদেশ দেন। আদালতে সোহেলের পক্ষে শুনানি করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অমিত তালুকদার।

সোহেলের বিরুদ্ধে নাশকতার বিভিন্ন ঘটনায় প্রায় দেড়শ মামলা রয়েছে। এসব মামলার অনেকগুলো থেকে তিনি উচ্চ আদালতে জামিন পেয়েছেন। কিছু মামলায় বিচারিক আদালত থেকেও জামিন পেয়েছেন তিনি। এর আগেও একবার তিনি সব মামলায় জামিন পেয়ে মুক্তির সময় জেল গেট থেকে গ্রেফতার হয়েছিলেন।

তিনি আরও বলেন, এখন সোহেল আবার সব মামলায় আদালত থেকে জামিন পেয়েছেন। এ অবস্থায় তাকে আবার গ্রেফতার করা হতে পারে এমন আশঙ্কা থেকেই হাইকোর্টে এই আবেদন করা হয়েছিল। সেই আবেদনের প্রেক্ষিতে আদালত আদেশ দিয়েছেন, সুনির্দিষ্ট মামলা ও পরোয়ানা ব্যতীত তাকে যেন গ্রেফতার বা কোনরকম হয়রানী করা না হয়।

গত ১৯ মার্চ হাইকোর্টে এ রিট আবেদনটি দায়ের করা হয়েছিল। সেই রিটের শুনানি শেষে আদালত সোমবার আদালত এই আদেশ দেন।

গত বছরের ৯ অক্টোবর নাশকতার বিভিন্ন মামলায় ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করেন সোহেল। আদালত জামিন আবেদন নাকচ করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। সেই থেকে তিনি কারাগারেই আছেন।

- See more at: http://www.bd24live.com/bangla/article/123746/index.html#sthash.6TIgk587.dpuf

বিএনপি নেতা সোহেলকে হয়রানী না করার নির্দেশ

২০১৭ মার্চ ২০ ১৭:০৩:২৫
বিএনপি নেতা সোহেলকে হয়রানী না করার নির্দেশ

সুনির্দিষ্ট মামলা ছাড়া বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব হাবিব-উন-নবী খান সোহেলকে গ্রেফতার বা হয়রানী না করতে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। স্বরাষ্ট্র সচিব, পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি), র‌্যাবের মহাপরিচালক, ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনারসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রতি এই নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

সোহেলের করা এক রিট আবেদনের প্রেক্ষিতে২০ মার্চ সোমবার বিচারপতি সৈয়দ মোহাম্মদ দস্তগীর হোসেন ও বিচারপতি মো. আতাউর রহমান খানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এই আদেশ দেন। আদালতে সোহেলের পক্ষে শুনানি করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অমিত তালুকদার।

সোহেলের বিরুদ্ধে নাশকতার বিভিন্ন ঘটনায় প্রায় দেড়শ মামলা রয়েছে। এসব মামলার অনেকগুলো থেকে তিনি উচ্চ আদালতে জামিন পেয়েছেন। কিছু মামলায় বিচারিক আদালত থেকেও জামিন পেয়েছেন তিনি। এর আগেও একবার তিনি সব মামলায় জামিন পেয়ে মুক্তির সময় জেল গেট থেকে গ্রেফতার হয়েছিলেন।

তিনি আরও বলেন, এখন সোহেল আবার সব মামলায় আদালত থেকে জামিন পেয়েছেন। এ অবস্থায় তাকে আবার গ্রেফতার করা হতে পারে এমন আশঙ্কা থেকেই হাইকোর্টে এই আবেদন করা হয়েছিল। সেই আবেদনের প্রেক্ষিতে আদালত আদেশ দিয়েছেন, সুনির্দিষ্ট মামলা ও পরোয়ানা ব্যতীত তাকে যেন গ্রেফতার বা কোনরকম হয়রানী করা না হয়।

গত ১৯ মার্চ হাইকোর্টে এ রিট আবেদনটি দায়ের করা হয়েছিল। সেই রিটের শুনানি শেষে আদালত সোমবার আদালত এই আদেশ দেন।

গত বছরের ৯ অক্টোবর নাশকতার বিভিন্ন মামলায় ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করেন সোহেল। আদালত জামিন আবেদন নাকচ করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। সেই থেকে তিনি কারাগারেই আছেন।

- See more at: http://www.bd24live.com/bangla/article/123746/index.html#sthash.6TIgk587.dpuf

Posted by Newsi24

রাজনীতি এর সর্বশেষ খবর



রে